ভাগ

কাপ্তাই নতুন বাজারের কেপিএম টিলায় আগুন লেগে সর্বস্ব হারানো ৩৬ পরিবারের দুই শতাধিক সদস্য এখনো খোলা আকশের নিচে মানবেতর জীবন-যাপন করছে।

কাপ্তাই মানবাধিকার কমিশনের মহিলা সম্পাদিকা নুর বেগম মিতা জানান, গত ১৬ এপ্রিল কেপিএম টিলায় ভয়াবহ আগুন লাগে। এই আগুনে ৩৬ পরিবারের লালিত স্বপ্ন মুহূর্তে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। আগুন লাগার পর থেকে এখন পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্তরা খোলা আকশের নিচে অবস্থান করছে। কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল লতিফ জানান, আগুনের ভয়াবহতা এতটাই প্রবল ছিল যে মানুষ কিছুই রক্ষা করতে পারেনি। তবে আগুন নেভাতে এসে কেউ কেউ লুটপাটে অংশ নেয় বলে জানা গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত এক নারী জানান, তার দুই মাস আগে বিয়ে হয়। বিয়ের সময় শ্বশুর বাড়ি থেকে তাকে সোনার তৈরি হাতের চুড়ি, গলার নেকলেস, কানের ঝুমকা এবং একটি নাকফুল উপহার দেওয়া হয়। কিন্তু সোনার জিনিস রাখা ব্যাগটি খোয়া যায়।

এদিকে ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসে কাপ্তাই উপজেলা প্রশাসন, কাপ্তাইয়ে অবস্থিত সেনাবাহিনীর ৫ আরই ব্যাটালিয়ন, ১০ বেঙ্গল, ১৯ বিজিবি, নৌ বাহিনী, রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসন, পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রীসহ বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যক্তি।

আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পারুল বেগম জানান, বিভিন্ন সংস্থার পক্ষ থেকে চাল, ডাল, তেল, আটা, কিছু নগদ টাকা, হাঁড়ি, পাতিল, কলসসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী সহযোগিতা পাওয়া গেছে। কিন্তু আমরা কোথায় রান্না করবো, কোথায় বসে খাবো, আর কোথায় থাকবো তার কোনো ব্যবস্থা হয়নি।